তারিখ : ০১ অক্টোবর ২০২০, বৃহস্পতিবার

সংবাদ শিরোনাম

ভালুকার করোনা আপডেট

২৯ জুন ২০২০, সোমবার
আক্রান্ত
২৪ ঘন্টা মোট
৫ জন ২২৯ জন
সুস্থ
২৪ ঘন্টা মোট
০ জন ৮২ জন
মৃত্যু
২৪ ঘন্টা মোট
০ জন ৩ জন

বিস্তারিত বিষয়

ভালুকায় প্রেমিকাকে ধর্ষণের অভিযোগে প্রেমিক গ্রেফতার

ভালুকায় প্রেমিকাকে ধর্ষণের অভিযোগে নতুন বৌএর সমানে থেকে ধর্ষক প্রেমিক কে গ্রেফতার
[ভালুকা ডট কম : ২০ জুলাই]
ভালুকায় এক কলেজ ছাত্রী প্রেমিকাকে প্রেমিক ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার জামিরদিয়া হামিদের মোড় এলাকায়। এ ঘটনায়  সোমবার সকালে (২০জুলাই) ভালুকা মডেল থানায় ধর্ষিতা বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন। ধর্ষক আশরাফুল ইসলাম(২২) বিয়ে করে নতুন বৌ বাড়িতে নিয়ে আসার পর পুলিশ তাঁর নতুন বৌ সামনে থেকে তাঁকে গ্রেফতার করে।

মামলা সূত্রে জানাযায়, গাজীপুর জেলার শ্রীপুর উপজেলার মিজানুর রহমান খান মহিলা ডিগ্রি কলেজের ২য় বর্ষের ছাত্রী কলেজে যাওয়া আসার সময় উপজেলার জামিরদিয়া গ্রামের আব্দুস ছামাদের ছেলে আশরাফুল ইসলাম প্রায় সময় প্রেম নিবেদন করে আস ছিলো। প্রেম নিবেদনের প্রেক্ষিতে প্রায় ২বছর পূর্বে তার সাথে ভিকটিমের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। প্রেমের সূত্র ধরে ভিকটিম আশরাফুলকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে আস ছিল। ভিকটিম আশরাফুলকে বিয়ের জন্য চাপ দিলে সে বিভিন্ন অজুহাত দেখিয়ে টালবাহানা শুরু করেন। গত ৬জুলাই রাতে ভিকটিম ঘরে বসে পড়ার সময় আশরাফুল ভিকটিমের ঘরে ঢুকে তাঁকে ধর্ষণ করে। এ সময় ভিকটিমের ডাক চিৎকার শুরু করলে পাশের রুম থেকে তার বাবা-মা আসার পূর্বেই আশরাফুল দৌড়ে পালিয়ে যায়।

এ ঘটনার পর ১০জুলাই ভিকটিম বিয়ের দাবীতে ধর্ষকের বাড়িতে অবস্থান নেয়।এ সময় স্থানীয় ৯নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য খলিলুর রহমান বিয়ের কথা বলে আশ্বাস্ত করে ভিকটিমের বাড়ি নিয়ে আসেন। পরে কয়েক দফা সামাজিক দরবার বসে। ১২জুলাই সবশেষ  দরবারে খলিলুর রহমান মেম্বারের নেতৃত্বে ভিকটিমকে ভয়ভীতি দেখিয়ে জোরপূর্বক আপোষ নামা স্ট্যাম্পে ভিকটিমের স্বাক্ষর নেন। এরমাঝে গোপানে আশরাফুলের পরিবারের লোকজন পাশ্ববর্তী শ্রীপুর উপজেলার মুরগীরবাজার এলাকায় বিয়ের জন্য পাত্রী দেখেন। সামাজিক ভাবে বিচার না পেয়ে শেষ পর্যন্ত ভিকটিম বাদী হয়ে রোববার (১৯জুলাই)সন্ধ্যায় ভালুকা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিলে পুলিশ আশরাফুলকে নতুন বৌ এর সামনে থেকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে।

ভিকটিম জানান, আমার একটাই দাবী যে আমার সব হরণ করেছেন আমি তাঁকে বিয়ে করবো। স্থানীয় মেম্বার খলিল আমার কাছ থেকে জোরপূর্বক স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নিয়েছে। শালিসের মাঝে উপস্থিত ছিলেন, খলিল মেম্বার,আলম খন্দকার,সিরাজ খন্দকার, হাসিম খন্দকার, ছেলে ভাই সাইদুল ইসলাম,মারজিয়া শহিদ গাজী ও ধর্ষক নিজে। শালিসানরা আশরাফুলের পরিবারের কাছ থেকে ২লাখ ৪০হাজার টাকা নিয়ে আমার ইজ্জত নিয়ে ছিনিমিনি খেলা শুরু করেছে। খলিল মেম্বারের জন্য আশরাফুল আমাকে বিয়ে করে নাই। খলিল মেম্বার আশরাফুলের পরিবারের সাথে গোপনে চুক্তি করে আমার জীবনটা তছনছ করে দিয়েছে।মোবাইলে ইউপি সদস্য খলিলুর রহমানের বার বার চেষ্টা করে মোবাইল বন্ধ পাওয়া যায়।

স্থানীয় চেয়ারম্যান তোফায়েল আহাম্মেদ বাচ্চু জানান, ছেলে-মেয়ের দীর্ঘ দিনের সম্পর্ক ছিল। ছেলে যখন বিয়ে করে ফেলেছে তখন মেয়ে তার বিরুদ্ধে মামলা করেছে। মেম্বার বিষয়টি আপোষ মিমাংসা করার চেষ্টা করতে পারে। টাকা পয়সা লেনদেনের কোনো ঘটনা নেই।

ভালুকা মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ মাইন উদ্দিন জানান, কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে একটি মামলা হয়েছে। এ ঘটনায় মুল আসামীকে গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।#




সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকা বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১২৮৩ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই